মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
শুক্রবার, ১৮ মার্চ ২০১১, ৪ চৈত্র ১৪১৭
যুদ্ধের আইন ও যুদ্ধাপরাধের ইতিহাস প্রাচ্যের জ্ঞানভাণ্ডারের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ
মুনতাসীর মামুন
আমরা যখন লেখালেখি শুরম্ন করি, তখন আমাদের বন্ধুদের মধ্যে শাহরিয়ার কবিরই ছিলেন সবচেয়ে উজ্জ্বল। বিশেষ করে কিশোরদের অতি প্রিয় লেখক ছিলেন তিনি। আমরা যখন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র তখনই পড়াশোনা ছেড়ে সাংবাদিকতায় যোগ দেন। এক সময়ের অতি বিখ্যাত সাপ্তাহিক বিচিত্রা যাঁরা গড়ে তুলেছিলেন তিনি ছিলেন তাঁদের অন্যতম। রাজনীতির প্রতি, বিশেষ করে বাম রাজনীতির প্রতি ঝোঁকও ছিল তাঁর। তবে, এক সময় ঐ রাজনীতি থেকে তিনি নিজেকে গুটিয়ে নেন। বিএনপি নেতা নাজমুল হুদা তথ্যমন্ত্রী থাকাকালীন অন্যায়ভাবে শাহরিয়ারকে চাকরিচু্যত করেন। নাজমুল হুদা . . .
একটি অসম্পূর্ণ যুদ্ধের খসড়া
মোহাম্মদ আবদুল মাননান
মানুষের মৃতু্য মানেই একটা দুঃখ নিয়ে আসা_ আপনজনের জন্য সেটি পর্বতের মতো ভারী। আর অকালপ্রয়াণ সে তো আরও ভারী, পর্বতের চেয়েও। মানুষকে অনেক যত্নে একটু-একটু করে বড় হতে হয়। এজন্য স্বাভাবিক জীবন আর একটা মোটামুটি সময়ে চলে যাওয়াই সবার চাওয়া। তারপরও একজন মানুষের চলে যাওয়া পাখির পালকের মত হালকা হতে পারে! এর কী জবাব হতে পারে_ সুমনাকে আজও তা তাড়িত করে, ক্ষত-বিক্ষত করে দেয় ভেতরটা। কতটা সময় পেরিয়ে গেছে, কতটা জল পদ্মা-মেঘনা হয়ে সাগরে মিশেছে তার কোনও হিসেব জানা নেই কারওর। এতগুলো বছর পরও সেই সময় এলে কেমন যেন হয়ে যায় . . .
আজিকার রোদ ঘুমায়ে পড়েছে ঘোলাটে মেঘের আড়ে
ফাতেমা আবেদীন নাজলা
পল্লীকবি জসীমউদ্দীন হারিয়ে যাচ্ছেন শহুরে সংস্কৃতির আড়ালে। এখন হয়ত আর কেউ আলোড়িত হয় না আসমানীদের গল্প শুনে। ১৯০৩ সালে ফরিদপুরের তাম্বুলখানা গ্রামে জন্ম নিয়েছিলেন এই কবি। প্রকৃতির মাঝে জন্ম, তাই প্রকৃতির কবি হয়ে উঠেছেন। তাঁর কবিতায় বাংলাদেশের পলস্নী-প্রকৃতি ও মানুষের সহজ-স্বাভাবিক রূপ যেভাবে উঠে এসেছে, অন্য কারও কবিতায় সে রকম কিছু খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। প্রবহমান গ্রামীণ মানুষের আশা- স্বপ্ন- আনন্দ- বেদনা ও বিরহ-মিলনের এমন আবেগ- মধুর চিত্র সব সময়ের জন্য ছুঁয়ে যায় হৃদয়। মর্মস্পর্শী এই কবির সৃষ্টিকর্ম অনেক . . .