মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
বুধবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০১১, ৪ ফাল্গুন ১৪১৭
বিশ্বকাপে বাংলাদেশের সম্ভাবনা ও বাস্তবতা
মিথুন আশরাফ
নিউজিল্যান্ডকে হোয়াইটওয়াশ করার পর জিম্বাবুইয়ে সিরিজে জয়, বিশ্বকাপে বাংলাদেশের সম্ভাবনা আরও জোরালো করে তুলেছে। কিন্তু বাস্তবতা কি বাংলাদেশকে সেই সম্ভাবনার নদীতে নৌকা নিয়ে ঘুরে বেড়াতে দেবে? বিশ্বকাপ শুরম্নর আগে সবার প্রশ্ন এই একটাই। দেশের মাটিতে বিশ্বকাপের খেলা। বাংলাদেশ কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠার সম্ভাবনার জোয়ারে ভাসছে। কিন্তু প্রতিপৰ দলগুলো হুমকি দিচ্ছে। বাসত্মবতার ভাটায় টান পড়ছে। ভারত, ইংল্যান্ড, দৰিণ আফ্রিকা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ এই চার দল বাংলাদেশের মুখ্য প্রতিপৰ। আর দুটি দল আয়ারল্যান্ড ও হল্যান্ড বাংলাদেশের . . .
এই বিশ্বকাপ একটি মাইলফলক
জনকণ্ঠ : প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে বিশ্বকাপ ক্রিকেট অনুষ্ঠিত হচ্ছে, আপনার অনুভূতি কেমন জানতে চাচ্ছি। রফিক : আমার অনুভূতি খুবই আনন্দের। এই অনুভূতি অতুলনীয়। বাংলাদেশের সামনে নতুন দিগনত্ম উন্মোচিত হবে। পুরো বিশ্বে পরিচিতি পাবে বাংলাদেশ। বাংলাদেশের ক্রিকেট এবং জাতীয় দলের জন্য এই বিশ্বকাপ হবে একটি মাইলফলক। জনকণ্ঠ : ঘোষিত বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল নিয়ে আপনার অভিমত কি? রফিক : খুবই ব্যালান্সড দল ঘোষিত হয়েছে। ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং তিন বিভাগেই টাইগাররা শক্তিশালী। গুরম্নত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে_ এই দলটি অনেকদিন . . .
ওয়াকারের মতো কোচ পাওয়া ভাগ্যের ॥ উমর গুল
স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ উত্তর-পশ্চিম সীমান্তপ্রদেশ পেশোয়ারে জন্ম নেয়া এ ক্রিকেটারকে নিয়ে খুব বেশি উচ্চবাচ্য নেই কোথাও। গতকাল শেরাটন হোটেলের মার্বেল রম্নমে আইসিসি আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে উমর গুলকে আশা করেননি কেউ। কিন্তু গত কয়েক বছরে গুলের ক্যারিয়ার বলে দেয় পাকিসত্মানের সবচেয়ে শৃঙ্খলাবদ্ধ ও সফল পেসার যদি কেউ থাকে, তবে তিনিই। ম্যাচ গড়াপেটায় যুক্ত থাকার অভিযোগে মোহাম্মদ আসিফ ও মোহাম্মদ আমিরের অনুপস্থিতিতে দলে সুযোগ পেয়েছেন তিনি। এ সুযোগ পাওয়াকে ব্যবহার করতে চান। নিজেকে প্রমাণ করে দেখানোর বাসনা আছে মনে। গতকাল . . .
এবারের বিশ্বকাপেও কি দেখা যাবে চমক জাগানিয়া শটের বাহার?
রুমেল খান
ওয়ানডে মূলত রানের খেলা। উইলোবাজদের খেলা। ব্যাটসম্যানদের অবারিত চার-ছয়ের মার দেখতেই গাঁটের পয়সা খরচ করে গ্যালারিতে হাজির হন তারা। বিশ্বকাপেও এর কোন ব্যতিক্রম হয় না। ব্যাটসম্যানরাই এখানে বেশিরভাগ ৰেত্রে হন জয়ের নায়ক। ১৯৭৫ থেকে ২০০৭ বিশ্বকাপ পর্যনত্ম ম্যান অব দ্য ম্যাচ নির্বাচিত হয়েছেন যে ক'জন, তাদের সংখ্যাগরিষ্ঠই হচ্ছেন ব্যাটসম্যান। তবে দর্শকরা সবচেয়ে বেশি মনে রাখেন সেই সব ব্যাটসম্যানকে যারা ব্যাকরণের বাইরে গিয়ে অদ্ভুত বিজাতীয় সব স্ট্রোক খেলে দর্শক-সমর্থক-ক্রিকেট অনুরাগীদের দেন প্রচুর আনন্দ। প্রতিটি . . .