মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
বুধবার, ১৩ মার্চ ২০১৩, ২৯ ফাল্গুন ১৪১৯
বিদেশী বিনিয়োগ বৃদ্ধিতে বৈঠক করবে বিএসইসি
অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দেশের পুঁজিবাজারে বিদেশী বিনিয়োগ বাড়াতে বাজারসংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলোচনার উদ্যোগ নিচ্ছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। সংস্থাটির মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক মোঃ ফরহাদ আহমেদ স্বাক্ষরিত এক প্রেস-বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে। এর আগে বাজারে স্থিতিশীলতা বাড়াতে বিদেশী বিনিয়োগ বৃদ্ধিতে একটি সুপারিশমালা তৈরির জন্য পৃথক কমিটিও গঠন করেছিল বিএসইসি। সম্প্রতি কমিটিটি সুপারিশমালা প্রস্তুত করে কমিশনে উপস্থাপন করে। এখনও এই সুপারিশমালাগুলো সম্পর্কে জনমত যাচাইয়ে সংশ্লিষ্টদের . . .
হরতালের প্রভাব নেই ॥ সূচক বাড়লেও লেনদেন কমেছে
অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দরপতনের ধারা কাটিয়ে ওঠার আপ্রাণ চেষ্টা করছে পুঁজিবাজার। বেশিরভাগ বিনিয়োগকারীর পত্রকোষ (পোর্টফলিও) ঋণাত্মক হওয়া এবং তাদের সতর্ক অবস্থানের কারণে লেনদেন কিছুটা কমলেও মঙ্গলবার উভয় বাজারেই সূচকের বৃদ্ধি ঘটেছে। ফলে সপ্তাহের প্রথম দুই দিন কার্যদিবসে সূচক কমার পর তৃতীয় কার্যদিবসে এসে ঢাকা স্টক একচেঞ্জের সূচক বেড়েছে। সেই সঙ্গে বেড়েছে বেশিরভাগ কোম্পানির দর। হরতালের কোন প্রভাবই পড়েনি পুঁজিবাজারে। এর আগে নির্ধারিত সময়ের আগে ব্রোকারেজ হাউসগুলো লকইন করায় উভয় বাজারেই যথাসময়ে লেনদেন শুরু হয়। বাজার . . .
তিন প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা
অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ সঠিকভাবে শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) না দেখানো, ইপিএস হিসাবে সঠিকভাবে নিরীক্ষা না করা এবং সিকিউরিটিজ আইন ভঙ্গের দায়ে ৩টি প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা এবং এক প্রতিষ্ঠানকে সতর্কপত্র ইস্যুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। মঙ্গলবার কমিশনের চেয়ারম্যান ড. এম খায়রুল হোসেনের সভাপতিত্বে কমিশনের ৪৭২তম সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। বিএসইসি’র নির্বাহী পরিচালক ফরহাদ আহমেদ স্বাক্ষরিত এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে। প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, প্রাথমিক . . .
টাইমস সিকিউরিটিজের বিরুদ্ধে ফোর্স সেলের অভিযোগ
অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ টাইম সিকিউরিটিজের বিরুদ্ধে ফোর্স সেলের অভিযোগ করেছেন ব্রোকারেজ হাউসটির এক বিনিয়োগকারী। তার নাম মোশারফ হোসেন। তিনি ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) বরাবর এ ব্যাপারে একটি অভিযোগ দাখিল করেছেন। তবে ঋণ সমন্বয়ের জন্যই শেয়ার বিক্রি করা হয়েছে বলে হাউস কর্তৃৃপক্ষ দাবি করেছে। মোশারফ হোসেন (ট্রেডিং কোড নং-০৮০৮২) ২০১০ সালের অক্টোবর মাসে ৬০ লাখ টাকা নিয়ে পুঁজিবাজারে আসেন। এরপর তিনি ১:২ অনুপাতে আরও ১ কোটি ২০ লাখ টাকা মার্জিন ঋণ নেন। কিন্তু ভয়াবহ ধসের পর একটানা . . .