মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৩, ৭ ফাল্গুন ১৪১৯
বাংলাদেশের ইতিহাসে এই প্রথম ॥ হরতাল প্রত্যাখ্যান
০ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, অফিস আদালত, দোকানপাট, বড় বড় শপিংমল ছিল স্বাভাবিক
০ সারাদেশে কিছু জঙ্গী হামলার চেষ্টা জামায়াতের, চৌদ্দগ্রামে পুলিশের গুলিতে নিহত ১
০ এ্যাম্বুলেন্সে হামলা করে জামায়াত-শিবির, মারা গেছে রোগী
স্টাফ রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো সাধারণ জনগণ কর্তৃক স্বতঃস্ফূর্তভাবে কোন হরতাল প্রত্যাখ্যানের ঘটনা ঘটল। শুধু প্রত্যাখ্যান নয়, হরতালবিরোধী মিছিলে গোটা রাজধানী ছিল সরগরম। রাজধানীর জীবনযাত্রা ছিল অনেকটাই স্বাভাবিক। যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির দাবিতে এবং জামায়াত-শিবিরের রাজনীতি নিষিদ্ধের দাবিতে শাহবাগ প্রজন্ম চত্বরে গণজাগরণ মঞ্চ থেকে জামায়াতের ডাকা সোমবারের দেশব্যাপী সকাল-সন্ধ্যা হরতাল প্রত্যাখ্যানের ডাকের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করায় এমন ইতিহাস সৃষ্টি করল দেশের প্রায় সব মানুষ। হরতালের দিনেও . . .
প্রজন্ম চত্বরে অবস্থানের ১৪ দিনে ॥ শোকের কালো রং
০ প্রজন্মসেনা শহীদ রাজীব স্মরণে শাহবাগসহ সারাদেশে একযোগে উঠল কালো পতাকা, সবার বুকে কালো ব্যাজ
০ তারকা ও বিজ্ঞাপনদাতাদের দিগন্ত টিভি বর্জন
০ পাড়ায় পাড়ায় ব্রিগেড, শাহবাগে প্রজন্ম স্তম্ভ
রাজন ভট্টাচার্য ॥ জামায়াতের ডাকা হরতালে প্রত্যাখ্যানে ও যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির দাবিতে ক্ষোভে-বিক্ষোভে উত্তাল ছিল শাহবাগের প্রজন্ম চত্বর। যোগ দিয়েছেন স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ সর্বস্তরের মানুষ। প্রজন্ম সেনা রাজীব স্মরণে সকাল ১১টায় গণজাগরণ মঞ্চসহ দেশব্যাপী একযোগে কালো পতাকা উত্তোলন ও কালো ব্যাজ ধারণ কর্মসূচী পালন করা হয়। এ সময় শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করেন সমবেতরা। বাসা-বাড়ি-অফিস-আদালত-দোকান সবখানেই কালোয় কালোয় প্রতিবাদ জানিয়েছেন দেশপ্রেমিক মানুষ। সংহতি প্রকাশ করে দিগন্ত টিভি . . .
নির্বাহী আদেশে জামায়াত নিষিদ্ধ করুন, বিজয় নিয়ে ঘরে ফিরুক
-----------
স্বদেশ রায়
-----------
রবিবার বৃষ্টিতে যেমন পানি জমেছিল শাহবাগের প্রজন্ম চত্বরে তেমনি হাজারো মানুষের পায়ে পায়ে জমে উঠেছিল কাদা। ওই কাদা ও পানিতে রাত দশটার পরেও প্রজন্ম চত্বরে কমেনি মানুষের স্রোত। ক্ষীণ হয়নি স্লোগানের গর্জন। সে গর্জনের অর্ধেকটা সময়জুড়ে ছিল অবিলম্বে জামায়াতের রাজনীতি নিষিদ্ধ করতে হবে। প্রজন্ম চত্বরে যে মানুষ জড়ো হচ্ছে তাদের কারও হাতে কোন অস্ত্র নেই, এমনকি একটি লাঠিও নেই। তাদের কেবল কণ্ঠে আছে স্লোগান আর গান ও কবিতা। কেউ যদি ভেবে বসেন, কী এমন শক্তি আছে এই স্লোগান, গান আর কবিতার। ভুল করবেন তারা। ভেবে দেখুন, . . .
ধিক্কার ও গণরোষ থেকে বাঁচতে জামায়াতের কৌশল বদল
নানান ব্যানারে পীর মাশায়েখদের নাম ব্যবহার করে মাঠে নামছে
শংকর কুমার দে ॥ ‘তুই রাজাকার’, ঘৃণাভরা গালির মতোই এখন মানুষের মুখে মুখে। বিক্ষুব্ধ জনতার রুদ্ররোষ থেকে বাঁচতে জামায়াত-শিবির কৌশল পাল্টেছে। রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্নস্থানে ‘মুসাফিরিন উলামায়ে কেরাম’, ‘পীর মাশায়েখ ও জনতার মঞ্চ’ ও ‘আলেম মাশায়েখ’ ইত্যাদি নামে মাঠে নেমেছে তারা। নতুন প্রজন্ম চত্বরের গণজাগরণ মঞ্চ থেকে জামায়াত-শিবিরের ঘাতক যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির দাবিতে আন্দোলন গড়ে ওঠার পর আলেম মাশায়েখদের নাম ও ধর্ম বিক্রি করে বাঁচার জন্য এটা তাদের নতুন কৌশল। . . .
জামায়াতের রাজনীতি নিষিদ্ধ করতে বিল আনুন
যুদ্ধাপরাধীর ক্ষেত্রে রাষ্ট্রপতির ক্ষমতা সঙ্কোচনে সংবিধান সংশোধন করতে হবে ॥ সংসদে মহাজোট সদস্যগণ
সংসদ রিপোর্টার ॥ অবিলম্বে জাতীয় সংসদে জামায়াত-শিবিরের রাজনীতি নিষিদ্ধ করতে বিল আনার জন্য সরকারের প্রতি দাবি জানিয়েছেন মহাজোটের সিনিয়র নেতারা। একই সঙ্গে ভবিষ্যতে কোন রাষ্ট্রপতি যুদ্ধাপরাধীদের দ- মওকুফ বা ক্ষমা করতে না পারেন সেজন্য সংবিধানের ৪৯ অনুচ্ছেদে সংশোধনী আনার দাবি জানিয়ে তাঁরা বলেন, সবসময় মহাজোট সরকার ক্ষমতায় নাও থাকতে পারে। ভবিষ্যতে এ সুযোগ নিয়ে যুদ্ধাপরাধীরা রাষ্ট্রপতির কাছ থেকে দ- মওকুফ নিয়ে বেরিয়ে আসলে কিছু করার থাকবে না। তাই যুদ্ধাপরাধীদের ক্ষেত্রে রাষ্ট্রপতির ক্ষমতা সঙ্কুচিত করতে হবে। . . .
বিশ টাকার জন্যও ওরা ট্রেন থেকে ফেলে দিয়ে মানুষ হত্যা করে
দুই ট্রেন ডাকাতের রোমহর্ষক বর্ণনা
আজাদ সুলায়মান ॥ ট্রেন ডাকাতি অন্যান্য অপরাধের চেয়ে ভিন্ন। অসহায় যাত্রীরা তাদের টাকা-পয়সা, সোনা-গয়না অনায়াসে দিয়ে দেয়ার পরও তারা বাঁচতে পারে না। বিশ টাকার জন্যও হত্যা করেছি। মানি ব্যাগে টাকা না থাকার কারণেও যাত্রীদের ফেলে দিয়েছি। আমরা নিজেরা বাঁচার জন্যই তাদের ধাক্কা দিয়ে মেরে ফেলি। আখাউড়া থেকে ঢাকাগামী তিতাস কমিউটারের ৪ যাত্রীকেও একই কারণে হত্যা করা হয়। ট্রেন থেকে ধাক্কা দেয়াটা, যাত্রী ফেলে দেয়াটা আমাদের কাছে খুবই স্বাভাবিক একটা কাজ। এমন অপরাধ জীবনে অনেক করেছি। কখনও পুলিশ বুঝতে পারেনি। এবার ধরা খেয়ে . . .