মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
বুধবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৩, ১ ফাল্গুন ১৪১৯
প্রজন্ম চত্বরে অবস্থানের ৮ দিন ॥ মৌনতায় ফাঁসির দাবি
০ এমন দৃশ্য দেখেনি কখনও কেউ
০ যোগ দিল গোটা দেশ
০ এ সংসদেই জামায়াত নিষিদ্ধের বিল আনা হতে পারে- লতিফ সিদ্দিকী
বিশেষ প্রতিনিধি ॥ তিন মিনিটের মৌনতায় বাংলাদেশ। নীরবতা যে কত বড় শক্তি তা দেখল বাংলাদেশ, দেখল গোটাবিশ্ব। -মঙ্গলবার অন্যরকম এক প্রতিবাদী নীরবতা দেখাল দেশ। যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির দাবিতে তারুণ্যের যে গর্জন চলে আসছে এক সপ্তাহ ধরে তা থেমে গিয়েছিল ৩ মিনিটের জন্য। গণজাগরণ মঞ্চের ‘স্তব্ধ বাংলাদেশ’ কর্মসূচীতে সংহতি প্রকাশ করে রাজপথে দাঁড়িয়েছিল দেশের কোটি কোটি মানুষ। এ নীরবতা ছিল প্রতিবাদের ভাষা, ঘাতক যুদ্ধাপরাধীদের প্রতি তীব্র ঘৃণা ও ফাঁসির দাবিতে। স্তব্ধতার এই গানে একাত্তরের মতোই যেন জেগে উঠেছিল . . .
জামায়াতী ঝটিকা তাণ্ডব- প্রতিরোধে ফুঁসে উঠেছে মানুষ
স্বদেশ রায়
-----------
দুপুরের জামায়াত-শিবিরের ঝটিকা তা-বের পরে রাজধানীর প্রজন্ম চত্বর যেন ফুঁসে ওঠে মানুষে। বিকেল চারটায় সেখানে তিন মিনিট নীরবতা পালন করতে আসে হাজার হাজার মানুষ। আর তাঁর আগে সকাল থেকে এই চত্বর ভরা ছিল স্কুল-কলেজের ছাত্রছাত্রীতে। তিন মিনিটের নীরবতা শেষ হবার পরে গোটা চত্বর গর্জে ওঠে জয় বাংলা স্লোগানে। সোমবার রাত থেকে এই চত্বর শুধু তাঁর তরুণ প্রজন্মের পদচারণায় মুখর ছিল না। সোমবার মধ্যরাত পেরিয়েও দেখা গেছে সেখানে শাদা শশ্রুমণ্ডিত মুক্তিসংগ্রামী স্লোগানে উচ্চকিত করছেন। তাঁকে ঘিরে আছে কয়েক শ’ নতুন প্রজন্মের . . .
তারুণ্যের প্রতিবাদ আরও বেগবান, চেতনা আরও উজ্জীবিত
পহেলা ফাল্গুনে মানুষ বাসন্তী সাজেই সাজতে পারবেন। গণজাগরণ মঞ্চের নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়, আগে কালো কাপড় ও কালো শাড়ি পরার ঘোষণাটি ছিল নিছকই রটনা রাজন ভট্টাচার্য ॥ কাউন্টডাউন শুরু। তখন ৩টা ৫৯ মিনিট। হাজার কণ্ঠে তখন ধ্বনিত হচ্ছে ৫৯-১ পর্যন্ত। তখন ঘড়ির কাঁটা চারটার ঘরে। হঠাৎ করেই স্তব্ধ হয়ে গেল সবকিছু। কোলাহল ও শব্দ দূষণের মধ্যে নেমে এলো রাজ্যের নীরবতা। শাহবাগজুড়ে এ এক অন্যরকম দৃশ্য। যেন পিন পড়লেও শব্দ হচ্ছে। যে যেখানে ছিলেন দাঁড়িয়ে গেলেন। রাস্তায় থেমে গেল বাস, প্রাইভেট কার। যাত্রীরা নেমে এলেন রাস্তায়। . . .
রাজধানীতে জামায়াতের ঝটিকা হামলা ॥ ১৫ গুলিবিদ্ধসহ আহত ৩০
স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজধানীর কয়েক স্থানে জামায়াত-শিবির আবারও চোরাগোপ্তা হামলা চালিয়েছে। এবার প্রকাশ্যে আগ্নেয়াস্ত্র, বোমা আর ধারালো অস্ত্র উঁচিয়ে হামলা চালায় তারা। জামায়াতী জঙ্গীদের হামলা থেকে রক্ষা পাননি বরেণ্য ব্যক্তিত্ব ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামান ও দৈনিক প্রথম আলো পত্রিকার সম্পাদক মতিউর রহমান। অধ্যাপক আনিসুজ্জামান অক্ষত থাকলেও হামলায় আহত হয়েছেন মতিউর রহমান। হামলাকারীরা বিরোধীদলীয় চীফ হুইপ জয়নাল আবদীন ফারুকের গাড়িও ভাংচুর করেছে। জঙ্গী স্টাইলে এ হামলায় রাজধানীতে অন্তত ২৫/৩০ . . .
প্রজন্ম চত্বরের আন্দোলনে একাত্ম ১৪ দল
বিশেষ প্রতিনিধি ॥ যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির দাবিতে শাহবাগের প্রজন্ম চত্বরে নতুন প্রজন্মের আন্দোলনের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করেছে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৪ দল। ১৪ দলের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ বলেন, যুদ্ধাপরাধীর ফাঁসির দাবিতে শাহবাগের তরুণ প্রজন্মের আন্দোলন ভিন্নপথে নিয়ে যেতে বিএনপি বিভ্রান্তমূলক ষড়যন্ত্র করছে। যারা শাহবাগের আন্দোলন নিয়ে বিভ্রান্ত ছড়াচ্ছে তাদের ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে। তবে নতুন প্রজন্ম যেহেতু জেগে উঠেছে তাই কোন ষড়যন্ত্র সফল হবে না। বিএনপিকে অবিলম্বে জামায়াতের সঙ্গ ছেড়ে স্বাধীনতার পক্ষে আসার . . .
যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চলছে, পর্যায়ক্রমে শেষ করা হবে ॥ প্রধানমন্ত্রী
নিজস্ব সংবাদদাতা, গাজীপুর, ১২ ফেব্রুয়ারি ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দীর্ঘ মেয়াদে প্রবৃদ্ধি অর্জনে বাংলাদেশ এখন বিশ্বের পঞ্চম শীর্ষ দেশ। ৫ কোটি লোক নিম্নবিত্ত থেকে মধ্যবিত্তে উন্নীত হয়েছে। বাংলাদেশকে ভবিষ্যত প্রবৃদ্ধির ইঞ্জিন হিসেবে দেখা হচ্ছে। সকলের সহযোগিতায় আমরা ২০২১ সালের মধ্যে একটি ক্ষুধা, দারিদ্র্য ও নিরক্ষরতামুক্ত অসাম্প্রদায়িক গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ গড়ে তুলব, ইনশাআল্লাহ। প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় সরকার নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করছে। একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধীদের বিচার . . .
দশ টাকায় রাজাকারের ফাঁসি
মহিউদ্দিন আহমেদ ॥ দশ টাকায় রাজাকারের ফাঁসি! ফাঁসি, ফাঁসি, দড়ি ছাড়া ফাঁসি!! এভাবে গত ক’দিন স্বাধীনতা প্রজন্ম চত্বরে ‘রাজাকারের ফাঁসি চাই’ লেখা ফিতার মাধ্যমে বাঙালীর বুকের কথা ছড়িয়ে দিচ্ছেন সজল। তাঁর মতো দেড় শতাধিক ব্যক্তি মঙ্গলবার থেকে এ কাজ করে বেড়াচ্ছে। রং দিয়ে তুলির আঁচড়ে কাদের মোল্লার ফাঁসির দাবিটি প্রজন্ম চত্বরে আগতদের গালে ও হাতে এঁকে দিচ্ছেন চারুকলা ও আর্ট কলেজের শিক্ষার্থীরা। ‘রাজাকারের ফাঁসি চাই’ ও ‘জয় বাংলা’ স্লোগানের ফিতা ও আলপনা মানুষ বেশি নিয়েছে . . .