মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
সোমবার, ১৫ আগষ্ট ২০১১, ৩১ শ্রাবণ ১৪১৮
যোগাযোগ খাতে চলছে লুটপাট ॥ মন্ত্রিপরিষদের সভায় ক্ষুব্ধ মন্ত্রীরা বললেন
০ অধিকাংশ মন্ত্রীর অভিযোগ রাস্তাঘাট রৰণাবেৰণের টাকা প্রকৌশলী, ঠিকাদার ও মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা ভাগবাটোয়ারা করে নেন
০ যোগাযোগমন্ত্রীর দাবি তিনি ব্যর্থ নন, অর্থ মন্ত্রণালয় টাকা দেয় না
০ অর্থমন্ত্রী জানিয়েছেন, বাজেটের টাকা দিয়ে দিয়েছি
জনকণ্ঠ রিপোর্ট ॥ মন্ত্রীদের তোপের মুখে পড়েন যোগাযোগমন্ত্রী সৈয়দ আবুল হোসেন। মন্ত্রিসভার প্রায় সব সদস্য রাস্তাঘাটের বেহাল দশার জন্য যোগাযোগ মন্ত্রণালয়কে দায়ী করে বক্তব্য দেন। জবাবে যোগাযোগমন্ত্রী বলেন, আমার টাকা নেই। প্রয়োজনীয় বরাদ্দ না থাকায় আমরা কাজ করতে পারছি না। অর্থমন্ত্রী বলেন, বাজেটের টাকা দিয়ে দিয়েছি। এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাস্তাঘাট দ্রুত সংস্কারের নির্দেশ দেন। তিনি বলেছেন, ঈদের আগে রাস্তাঘাট চলাচলের উপযোগী করতে হবে। প্রয়োজনে কম গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প থেকে টাকা এনে সংস্কার করতে হবে। . . .
কাঁদো, বাঙালী কাঁদো
শেষ হোক তাদের বেঁচে থাকার দিন/যারা অবেলায় জাতিকে করেছে পিতৃহীন
আজ জাতীয় শোক দিবস
উত্তম চক্রবর্তী ॥ "হে মহান, মহাবীর/ গর্ব তুমি বাঙালী জাতির/ তুমিই তো জাতির পিতা/ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।/ তুমি রবে ততদিন/ বাঙালী জাতির হৃদয়ে/ যতদিন তোমার অর্জিত বাংলার পতাকার/ সেই লাল রক্তিম সূর্য উদ্দীপ্ত হবে/ বাংলার পূর্ব আকাশে।" "শেষ হোক তাদের বেঁচে থাকার দিন/ যারা অবেলায় জাতিকে করেছে পিতৃহীন।" কাঁদো, বাঙালী কাঁদো। আজ যে কাঁদারই দিন। সেদিন আকাশ কেঁদেছিল। সেদিন বাতাস কেঁদেছিল। শ্রাবণের বৃষ্টি নয়, আকাশের চোখে ছিল জল। গাছের পাতারা শোকে সেদিন ঝরেছে অবিরল। এসেছিল সেই ভয়াবহ . . .
১৩ আইনজীবীর নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা, আদালতের মঞ্জুর
ভিন্ন দুটি মামলায় কারাগারে যেতে হলো তাদের
স্টাফ রিপোর্টার ॥ হাইকোর্টের এজলাসে হামলার ঘটনায় আদালত অবমাননার বিষয়ে ১১ আইনজীবী নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনার পর আদালত ৰমা করে দেয়। একই সঙ্গে তাঁদের আইন পেশা পরিচালনা সংক্রান্ত বিধিনিষেধও প্রত্যাহার করা হয়েছে। ভবিষ্যতে এরা এমন ঘটনা ঘটাবে না এ নিশ্চয়তার পরে বার ও বেঞ্চের মধ্যে সমন্বয় রাখতেই রবিবার বিচারপতি এএইচএম শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক ও বিচারপতি গোবিন্দ চন্দ্র ঠাকুর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট দ্বৈত বেঞ্চ এ আদেশ দেয়। অন্যদিকে ক্ষমা পাবার পরেও তাদের কারাগারে যেতে হলো। কারণ ঐ ঘটনায় পুলিশের দুটি মামলায় নিম্ন . . .
গয়েশ্বরের হরতালের হুমকির পর স্বাগত জানালেন ফখরুল
মনমোহনের সফর
স্টাফ রিপোর্টার ॥ বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ভারতের প্রধানমন্ত্রীর বাংলাদেশ সফরের সময় হরতাল দেয়ার হুমকি দিলেও দলটির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ভারতের প্রধানমন্ত্রীর বাংলাদেশ সফরকে স্বাগত জানিয়েছেন। রবিবার এক আলোচনাসভায় মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আগামী ৬ সেপ্টেম্বর ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং ঢাকা সফরে আসছেন। আমরা তার এ সফরকে স্বাগত জানাচ্ছি। আমরা চাই, ভারতের সঙ্গে সমতার ভিত্তিতে সুসম্পর্ক গড়ে তুলতে। আমরা আশা করব, তার সফরের মাধ্যমে দু'দেশের মধ্যকার . . .
ভারতের সঙ্গে কোন দেশবিরোধী চুক্তি হলে আন্দোলন ॥ খালেদা
স্টাফ রিপোর্টার ॥ ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের আসন্ন বাংলাদেশ সফরে ভারতের সঙ্গে কোন দেশবিরোধী চুক্তি করা হলে ঈদের পর আন্দোলনের ঘোষণা দিয়েছেন জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা ও বিএনপি চোরপার্সন খালেদা জিয়া। রবিবার ঢাকা মহানগর বিএনপি আয়োজিত ইফতার মাহফিলে তিনি এ ঘোষণা দেন। জাতীয় সংসদের এলডি হল চত্বরে এ ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। খালেদা জিয়া বলেন, দেশের স্বার্থে আমরা যে কোন চুক্তির পৰে। কিন্তু ভারতের প্রধানমন্ত্রীর বাংলাদেশ সফরে তাঁর বা তাঁর দেশের সঙ্গে বাংলাদেশের স্বার্থবিরোধী কোন চুক্তি হলে ঈদের . . .
রধানমন্ত্রী টুঙ্গিপাড়া যাচ্ছেন আজ
নিজস্ব সংবাদদাতা, গোপালগঞ্জ, ১৪ আগস্ট ॥ আজ সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা টুঙ্গিপাড়ায় আসছেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৩৬তম মৃত্যুবার্ষিকীতে শোক দিবস পালনের জন্য টুঙ্গিপাড়ায় নানা কর্মসূচীতে তিনি অংশ নেবেন। তাঁর সঙ্গে উপস্থিত থাকবেন মন্ত্রিপরিষদ, সাংসদ, তিন বাহিনীর প্রধান, সরকারী উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা ও দলীয় নেতৃবৃন্দ। দিবসটি পালন উপলক্ষে গোপালগঞ্জেও নেয়া হয়েছে নানা কর্মসূচী। সকাল সোয়া ৯টায় প্রধানমন্ত্রী ঢাকা থেকে হেলিকপ্টারযোগে রওনা হবেন এবং গোপালগঞ্জে অবতরণ করবেন পৌনে ১০টায়। বেলা . . .
জাতীয় শোক দিবসে সারাদেশে কঠোর নিরাপত্তা বলয়
গাফফার খান চৌধুরী ॥ এবারের জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সারাদেশে কঠোর নিরাপত্তা বলয় গড়ে তোলা হয়েছে। বিশেষ নিরাপত্তা বলয় থাকছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ বঙ্গবন্ধু পরিবারের সদস্য ও সুধী সমাজের বিশিষ্ট ব্যক্তিদের ঘিরে। রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনাগুলোতে থাকছে নিশ্ছিদ্র্র নিরাপত্তা। যানবাহন চলাচল ও ঢাকার প্রবেশ মুখসহ পুরো রাজধানীজুড়ে অন্তত অর্ধশত চেকপোস্ট বসিয়ে তলস্নাশি চালানো হচ্ছে। কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার, বঙ্গভবন, গণভবন, সচিবালয়, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান, ধানমণ্ডির ৩২ নম্বর বঙ্গবন্ধু জাদুঘরসহ বেশকিছু এলাকায় . . .