মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
শুক্রবার, ১ জুলাই ২০১১, ১৭ আষাঢ় ১৪১৮
সংবিধানের পঞ্চদশ সংশোধনী পাস
তত্ত্বাবধায়ক বাতিল, অন্তর্বর্তী সরকারের বিধান
০ বিসমিল্লাহ ও রাষ্ট্রধর্ম বহাল
০ সকল ধর্মের মর্যাদা নিশ্চিত
০ পৰে ২৯১ বিপৰে ১ ভোট
উত্তম চক্রবর্তী/ নাজনীন আখতার ॥ ১৫ বছর ৩ মাস ৪ দিন পর ২৯১-১ বিভক্তি ভোটে তত্ত্বাবধায়ক সরকার পদ্ধতি বিলুপ্ত করে বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে পাস হয়েছে আলোচিত সংবিধান (পঞ্চদশ সংশোধন) বিল। বিরোধী দলের অনুপস্থিতিতে বিলটির বিরোধিতা করে একমাত্র বিপৰে ভোট প্রদান এবং মোট চার দফা অধিবেশন থেকে ওয়াক আউট করেছেন স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য মুহাম্মদ ফজলুল আজিম। মহাজোটের তিন প্রধান শরিক ওয়ার্কার্স পার্টি, জাসদ ও ন্যাপের ৬ সংসদ সদস্য মূল বিল পাসের পৰে ভোট দিলেও সংশোধনী প্রস্তাব বাতিলের বিভক্তি ভোটের সময় 'রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম, . . .
রাজনীতিবিদদের কাছে রাজনীতি ফিরিয়ে দিলেন শেখ হাসিনা
সংবাদ ভাষ্য
স্বদেশ রায় প্রখ্যাত সাংবাদিক আতাউস সামাদ তাঁর বেশ কয়েকটি লেখায় এ স্মৃতিচারণ করেছেন, ২৫ মার্চ রাতে বঙ্গবন্ধু যখন ৩২ নম্বরের বাড়ি থেকে সকলকে বিদায় দিয়ে সিঁড়ি বেয়ে দোতলায় উঠতে যাচ্ছেন ওই সময় তিনি সিঁডির দেয়াল ঘেঁষে গিয়ে দাঁড়ান। উদ্দেশ্য ছিল, রিপোর্ট সংগ্রহ। তাঁকে ওই অবস্থায় দেখে বঙ্গবন্ধু বললেন, এখন যাও, আমি তোমাদের স্বাধীনতা দিয়ে দিলাম, তোমরা এখন রৰা কর। দীর্ঘ বাইশ বছর সংগ্রামের পর বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশের মানুষকে বলতে পেরেছিলেন, আমি তোমাদের স্বাধীনতা দিয়ে দিলাম, তোমরা এখন রৰা কর। শেখ হাসিনাও তাঁর তিরিশ . . .
অনিবার্য সংঘাতের দিকে ঠেলে দেয়া হয়েছে দেশকে
সংবিধান এখন আওয়ামী লীগের ইশতেহার ॥ খালেদা জিয়া
স্টাফ রিপোর্টার ॥ জাতীয় সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা ও বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া বলেছেন, জনগণের আশা-আকাঙ্কা উপেক্ষা করে একতরফাভাবে সংবিধান সংশোধন করে দেশকে অনিবার্য সংঘাতের দিকে ঠেলে দিয়েছে সরকার। সেই সঙ্গে সরকার দেশ ও জনগণের বিরম্নদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে বলে অভিযোগ করে তিনি বলেন এর দায় প্রধানমন্ত্রীকেই নিতে হবে। তত্ত্বাবধায়ক সরকার বাতিল করে সংবিধান সংশোধনের মাধ্যমে ভবিষ্যতে শানত্মিপূর্ণ ৰমতা হসত্মানত্মর ও জনগণের ভোটাধিকার কেড়ে নেয়া হয়েছে বলে মন্তব্য করে তিনি বলেন, এর মাধ্যমে আরেকটি কালো অধ্যায় রচনা . . .
ফর্মুলা থাকলে এখনও দিতে পারেন, অযথা গ-গোল করবেন না
বিল পাসের পর বিরোধী দলের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী
সংসদ রিপোর্টার ॥ প্রধানমন্ত্রী ও সংসদ নেতা শেখ হাসিনা সংবিধান (পঞ্চদশ সংশোধনী) পাস হওয়ায় আল্লাহর দরবারে শুকরিয়া আদায় করেছেন। বিরোধীদলীয় নেত্রী খালেদা জিয়ার উদ্দেশে তিনি বলেন, "আপনাদের কোন ফমর্ুলা থাকে এখনও তা দিতে পারেন। অযথা আন্দোলনের নামে গ-গোল করে জনগণকে কষ্ট দেবেন না, জনগণের দুর্ভোগ সৃষ্টি করবেন না। জনগণ আপনাদের ভোট দেয়নি বলে তাদের কষ্ট দিয়ে লাভ নেই। এ সংশোধনীর মাধ্যমে আমরা জনগণের ৰমতায়ন নিশ্চিত করতে পেরেছি।" বিরোধী দলকে পবিত্র কোরানের আল-ইমরানের ২৬ নম্বর আয়াত ভালভাবে পাঠ করার অনুরোধ . . .
আজ থেকে বাজারে নামবে ভ্রাম্যমাণ আদালত
ডিও ব্যবসায়ী-মিল মালিক সিন্ডিকেট, অকার্যকর পরিবেশক প্রথা
মিজান চৌধুরী ॥ পরিবেশক প্রথা অকার্যকর করতে গোপন তৎপরতা শুরু করেছে মিল মালিক ও ডিও ব্যবসায়ীরা। তারা সিন্ডিকেটের মাধ্যমে এ পদ্ধতিকে অকার্যকর করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। বৃহস্পতিবার সরকারের দেয়া সর্বশেষ সময় শেষ হলেও সারাদেশে পুরোপুরি পরিবেশক নিয়োগ দেয়া হয়নি। নতুন পরিবেশকদের মাল না দিয়ে ডিও ব্যবসায়ীদের দেয়া হচ্ছে। ফলে ভোজ্যতেল ও চিনির বাজার স্থিতিশীল রাখতে সরকারের এ উদ্যোগ শুরম্নতে ব্যর্থ হতে চলেছে। এদিকে পরিবেশক প্রথা বাস্তবায়নে টালবাহানা দেখে বৃহস্পতিবার ট্যারিফ কমিশন অফিসে চিনি ও ভোজ্যতেল উৎপাদনকারী . . .
নানা জটিলতা নিয়ে এডিপির যাত্রা শুরু আজ
হামিদ-উজ-জামান মামুন ॥ নানা জটিলতা মাথায় নিয়ে আজ থেকে যাত্রা শুরু করছে নতুন অর্থবছরের এ যাবতকালের সর্বোচ্চ আকারের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচী। এর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে সম্পদের ঘাটতি। এ ছাড়া প্রকল্প বাস্তবায়নের ৰেত্রে প্রধান বাধা হিসেবে দেখা দেবে ভূমি জটিলতা। তবে এসব সমস্যা সমাধানে হাত গুটিয়ে বসে নেই পরিকল্পনা কমিশন। সম্পদের ঘাটতি সমস্যা সমাধাান এবং বিভিন্ন প্রকল্পের পরিচালকদের দায়িত্বহীনতার বিষয়ে শীঘ্রই প্রধানমন্ত্রীর শরণাপন্ন হতে যাচ্ছেন পরবকল্পনামন্ত্রী এয়ার ভাইস মার্শাল (অব) একে খন্দকার। এ বিষয়ে সম্প্রতি . . .
ভোজ্যতেল ও চিনি ক্রয়-বিক্রয়ে পাকা রসিদ ব্যবহার অত্যাবশ্যক
সাধারণ ভোক্তা পর্যায়ে সহনীয় ও যৌক্তিক মূল্যে চিনি ও ভোজ্যতেল বিপণনের ক্ষেত্রে দেশে পরিবেশক পদ্ধতি চালু হয়েছে। এ পদ্ধতির সুফল যাতে সাধারণ জনগণ, পরিশোধক, আমদানিকারক ও ব্যবসায়ীবৃন্দ পেতে পারে সে জন্য পণ্যাদি হসত্মানত্মরের প্রতিপর্যায়ে চালান (কনসাইনমেন্ট) নং, পরিমাণ, পাইকারি এবং সর্বোচ্চ খুচরা মূল্য উলেস্নখসহ পাকা রসিদ ব্যবহার করা অত্যাবশ্যক। সকল পরিশোধক ও আমদানিকারককে চিনি ও ভোজ্যতেল বাজারজাতকরণের সময় পাকা রসিদ ব্যবহার ও স্ব স্ব পরিবেশকবৃন্দকে ও খুচরা বিক্রেতাগণের কাছেও পণ্য হস্তান্তরের সময় পাকা রসিদ . . .