মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
শনিবার, ১৬ এপ্রিল ২০১১, ৩ বৈশাখ ১৪১৮
মৌলবাদ রোখার শপথ
বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে মানুষের ঢল
সৈয়দ সোহরাব ॥ যুদ্ধাপরাধীদের বিচার, অশুভকে পরাভূত করা আর অসাম্প্রদায়িক চেতনায় দেশ গড়ার প্রত্যয় নিয়ে জাতি বৃহস্পতিবার বরণ করে নিল বাংলা ১৪১৮ সালকে। উগ্র মৌলবাদী হামলার ভীতি তুচ্ছ করে তেজোদীপ্ত বাঙালী সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে রম্নখতেই অসাম্প্রদায়িক চেতনার গান গেয়ে এদিন বরণ করে নিল নতুন বছরকে। অন্যান্য বছরের চেয়ে এবার সর্বসত্মরের মানুষের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ ছিল বেশি। তাই লাখো মানুষের এ বর্ণিল ও উচ্ছল উপস্থিতির কারণে বর্ষবরণের আয়োজন রূপ নেয় জনসমুদ্রে, যা জাতিসত্তাকে খ-িত করার অপচেষ্টার বিরম্নদ্ধে ছিল . . .
দেখার কেউ নেই!
০ স্বাধীনতাস্তম্ভে আবর্জনার স্তূপ
০ শহীদ মিনারে তাসের আড্ডা, মাদক সেবন
০ রায়েরবাজার বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে চলছে ক্রিকেট খেলা
রাজন ভট্টাচার্য ॥ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার, শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধসহ নিরাপত্তাহীন অবস্থায় রয়েছে রাজধানীর বিভিন্ন ঐতিহাসিক স্থাপনা। এসব স্থাপনায় অব্যবস্থাপনার কোন শেষ নেই। সরেজমিনে দেখা গেছে, বেশিরভাগ স্থাপনাই এখন অপরাধীদের অভয়ারণ্য। অরৰিত অবস্থায় জুয়া, মাদক, দেহ ব্যবসাসহ নানা অপকর্ম চলে এ সব স্থাপনায়। মল-মূত্রসহ দুর্গন্ধে দর্শনার্থীরাও এখন আর খুব একটা আসেন না। জুতো নিয়ে প্রবেশের ঘটনা প্রতিদিনের দৃশ্য। একারণে এসব স্থাপনার পবিত্রতা নষ্ট হচ্ছে। সংশিস্নষ্টরা বলছেন, ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলন ও ১৯৭১ সালের . . .
নিয়ন্ত্রণহীন আগ্রাসী ব্যাংকিং, আর্থিক খাতে নেতিবাচক প্রভাব
০ কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বিধিনিষেধ অমান্য
০ লাগামহীন বেতনভাতা
০ আইএমএফের উদ্বেগ
খায়রুল হোসেন রাজু ॥ দেশে আগ্রাসী ব্যাংকিং চলছে। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের একাধিক বিধিনিষেধ অমান্য করেই এটি করছেন একাধিক ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক। আগ্রাসী ব্যাংকিংয়ের জন্য এমডিদের লাগামহীন বেতন-ভাতা, বোনাস এবং অতিরিক্ত সুবিধাদী দায়ী। দীর্ঘদিন ধরে দেশের ব্যাংকিং খাতে এ ধরনের অনৈতিক ব্যাংকিং ব্যবস্থা গড়ে উঠলেও এটি যেন নিয়ন্ত্রণের বাইরে রয়ে যাচ্ছে। ফলে একদিকে যেমন ব্যাংকগুলো হুমকির মুখে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। অন্যদিকে দেশের আর্থিক খাতে বড় ধরনের নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে। বিষয়টি নিয়ে অর্থনীতিবিদ, বাংলাদেশ ব্যাংক, . . .
বিজু উৎসবের দিন রাঙ্গামাটিতে ব্রাশ ফায়ারে শিশুসহ ২ জনকে হত্যা
বিক্ষোভ মিছিল সমাবেশ
নিজস্ব সংবাদদাতা, রাঙ্গামাটি, ১৫ এপ্রিল ॥ রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলার সন্ত্রাস কবলিত দুর্গম বাঘাইছড়ি উপজেলা সদরের কদমকলী এলাকায় সন্ত্রাসীরা ব্রাশ ফায়ার করে শিশি মনি চাকমা (৩২) ও তার শিশু কন্যা উরপি চাকমা (২) নামে ২ জনকে হত্যা করে। বুধবার রাত সাড়ে ১২টায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, সন্ত্রাসীরা তার ঘরে প্রবেশ করে তাদের ব্রাশ ফায়ারে হত্যা করে চলে যায়। বাঘাইছড়ি পুলিশ লাশ উদ্ধার করে রাঙ্গামাটি হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়ে দেয়। শিশি মনি জেএসএস এর সংস্কারপন্থী গ্রম্নপের সদস্য বলে জানা গেছে। পার্বত্যবাসীর . . .
জিটা মানসিক রোগী!
হলিউড অভিনেত্রী ক্যাথরিন জিটা-জোন্স মানসিক রোগে ভুগছেন। এ সমস্য থেকে মুক্তি পেতে তাঁকে নিয়মিত মানসিক ডাক্তারের কাছে যেতে হচ্ছে। স্বামী ও হলিউড অভিনেতা মাইকেল ডগলাস ক্যান্সারে আক্রানত্ম হওয়ার পর ক্যাথরিনকে দীর্ঘদিন বেশ চাপের মধ্যে থাকতে হয়েছে। ডগলাসের ক্যান্সার নিয়ে দুশ্চিনত্মা এবং তাঁকে সেবা শুশ্রূষা করতে গিয়ে তাঁকে ভীষণ খাটা খাটুনি করতে হয়েছে। জিটা-জোন্সের প্রতিনিধি এক বিবৃতিতে ক্যাথরিনের মানসিক সমস্যার কথা স্বীকার করে বলেন, গত বছর অত্যনত্ম চাপের মধ্যে থাকার কারণে ক্যাথরিনের 'বাইপোলার টু' . . .
বর্ষবরণ নিয়ে মাদারীপুর ও কক্সবাজারে দফায় দফায় সংঘর্ষ
জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ মাদারীপুরে বৈশাখী শোভাযাত্রায় রং দেয়া নিয়ে দুই গ্রম্নপের সংঘর্ষ, গ্রামবাসীর ওপর পুলিশের হামলা ও বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় অর্ধশতাধিক লোক আহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে তিন ঘণ্টাব্যাপী চলে এ সংঘর্ষ। এদিকে, কঙ্বাজারে পেকুয়ায় বৈশাখী মেলা ও বলী খেলার বিরোধ নিয়ে দু'পৰের দফায় দফায় হামলা-সংঘর্ষের ঘটনায় অনত্মত ৪০ জন আহত হয়েছে। পুলিশ হামলাকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে ৮ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোড়ে এবং উপজেলা প্রশাসন পেকুয়া ও বারবাকিয়া এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করে। পরে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা . . .
মনোয়ারা হাড়ক্ষয় রোগে ভুগছেন, চিকিৎসায় সাহায্য করুন
স্টাফ রিপোর্টার ॥ প্রিয় দেশবাসী, অসহায় মনোয়ারা বেগমের চিকিৎসায় সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে হাড়ৰয় রোগে ভুগছেন। হাঁটাহাঁটি করতে পারছেন না তিনি। তাঁর শারীরিক অবস্থা দ্রম্নত অবনতির দিকে যাচ্ছে। টাকার অভাবে তিনি উন্নত চিকিৎসা নিতে পারছেন না। জরম্নরি ভিত্তিতে উন্নত চিকিৎসার পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা। কিন্তু মনোয়ারা বেগমের দরিদ্র পরিবারের পৰে এই ব্যয়বহুল চিকিৎসা চালিয়ে যাওয়া সম্ভব হচ্ছে না। চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ওষুধ কিনতে প্রতি মাসে লাগবে প্রায় ৪ হাজার টাকা। ওষুধ পর্যনত্ম কিনতে পারছেন . . .