মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
বুধবার, ২৫ মে ২০১১, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪১৮
বিদেশে বসে 'দেশনেত্রীর' দেশবিরোধী প্রলাপোক্তি
আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী
বাংলাদেশের আগামী সাধারণ নির্বাচন এখনও বেশ কিছুটা দূরে। দু'বছর আড়াই বছর দূরে তো বটেই। কিন্তু এরই মধ্যে আগাম রণবাদ্য বেজে উঠেছে। বিএনপি হাঁকডাক শুরু করেছে মধ্যবর্তী নির্বাচন চাই। একটি বিশাল গণম্যান্ডেটের অধিকারী সরকার কেন তাদের দেশশাসনের দু'বছর আড়াই বছর না যেতেই একটি বিপুলভাবে পরাজিত দলের দাবিতে মধ্যবর্তী নির্বাচন দিতে যাবে, তা কোন রাজনৈতিক পণ্ডিতজ্ঞ যুক্তি-বুদ্ধি দ্বারা কাউকে বোঝাতে পারবেন না। বিএনপি হয়ত ভাবছে মধ্যবর্তী নির্বাচন অনুষ্ঠানের দাবি তারা আদায় করতে পারবে না, কিন্তু সেই দাবিতে . . .
একটি বিজ্ঞানমনস্ক সমাজ ও রাষ্ট্রের সংবিধান
বোরহানউদ্দিন খান জাহাঙ্গীর
বাংলাদেশ সমাজ ও রাষ্ট্রে সেকু্যলারের পতন হলে বৃদ্ধি পাবে বর্বরতা। ধর্মজ একরোখামি তৈরি করে বর্বরতা আর এনলাইটেনমেন্ট তৈরি করে সভ্যতা। বাংলাদেশ রাষ্ট্র এনলাইটেনমেন্ট প্রজেক্টের দৰিণ এশিয়ায় শেষ বংশধর। এই প্রজেক্টের লৰ্য : নৈতিক আচরণের সর্বজনীন মান প্রতিষ্ঠা করা, এই মান উৎকীর্ণ রাষ্ট্রের সকল প্রতিষ্ঠানে এবং এই মানের নিরিখে প্রতিষ্ঠা পাবে সমতা, স্বাধীনতা এবং সৌভ্রাতৃত্ব। এই সবকিছু শক্তিশালী করবে মানব অধিকার। সিভিলিটির বোধে একত্র হয়েছেন (মুক্তিযুদ্ধের বোধও তা-ই) বিপ্লবী সংস্কার করা, লিবারেলরা, সমাজতন্ত্রীরা . . .
আজ জাতীয় কবির জন্মদিন
প্রতিবছরের মতো এবারও এসেছে ১১ জ্যৈষ্ঠ। আমাদের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের জন্মদিন। প্রেম, মানবতা ও বিদ্রোহের প্রতীক কবি কাজী নজরুল ইসলাম। ১৮৯৯ সালে পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমানের চুরুলিয়া গ্রামে এই মহান কবির জন্ম। ব্রিটিশ ঔপনিবেশিক শাসনামলে তিনি যাবতীয় শোষণ ও বঞ্চনার বিরুদ্ধে কলম ধরেছিলেন। বাংলা সাহিত্যে বিদ্রোহী কবি কাজী নজরম্নলের যখন আবির্ভাব, তখন কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ এ দেশের সাহিত্যে এক বিশাল মহীরম্নহর মতো অবস্থান করেছিলেন। সে সময় খুব কম কবিই রবীন্দ্র প্রভাব এড়িয়ে কাব্যচর্চায় সাফল্য পেয়েছিলেন। কাজী নজরুল . . .
মূল্যস্ফীতির দুর্ভোগ কমান
এমনিতেই দ্রব্যমূল্যের উর্ধগতিতে জনজীবনে নেমে আসছে দুর্ভোগ। তার ওপর খাদ্যে মূল্যস্ফীতি সকল রেকর্ড ভঙ্গ করেছে। এই অবস্থায় সাধারণ মানুষজনের কী হাল তা সহজেই অনুমেয়। জনদুর্ভোগ লাঘবে তাই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া সরকারের জন্য অপরিহার্য হয়ে দাঁড়িয়েছে। সংবাদপত্রের এ সংক্রান্ত রিপোর্ট থেকে জানা যায়, গত দশ মাসে (জুলাই-এপ্রিল) খাদ্যে মূল্যস্ফীতি দাঁড়িয়েছে ১৪ দশমিক ৩৬ শতাংশ। এর আগের মাসে অর্থাৎ মার্চ পর্যন্ত এ হার ছিল ১৩ দশমিক ৮৭ শতাংশ। এই এক মাসের ব্যবধানে পয়েন্ট টু পয়েন্টে এই হার বেড়েছে শূন্য দশমিক ৪৯ শতাংশ। . . .