মানুষ মানুষের জন্য
শোক সংবাদ
পুরাতন সংখ্যা
রবিবার, ২৩ অক্টোবর ২০১১, ৮ কার্তিক ১৪১৮
একুশ শতক
স্টিভ জবস ॥ ডিজিটাল যুগের ধ্রুবতারা
মোস্তফা জব্বার
এই কলামে একটি চলমান নিবন্ধ প্রকাশিত হচ্ছিল, টেলিফোন শিল্প সংস্থা কর্তৃক সংযোজনকৃত বাংলাদেশের নিজস্ব একটি ব্র্যান্ড দোয়েল ও তার ভবিষ্যত নিয়ে। এর শিরোনাম ছিল, "দোয়েল কি টেলিটক হবে?"। প্রসঙ্গটি দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ১১ অক্টোবর ২০১১ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এর উদ্বোধন করার পর পুরো দেশে এর ব্যাপারে ব্যাপক আগ্রহ তৈরি হয়। মানুষের আগ্রহ মেটাতে আমাকে হাজার হাজার লিফলেট বিলাতে হয়েছে। দিনে দিনে এই ডিজিটাল যন্ত্রগুলো পাবার জন্য সাধারণ মানুষ প্রচণ্ড ভাবে উৎসুক হয়ে ওঠে। ঢাকার . . .
তারুণ্যের উৎসবে লালন
মিলু শামস
তাঁরা একই সমতলে নন। চে গুয়েভারা এবং লালন। দেশকাল বিচরণ জগত সব আলাদা। চে গুয়েভারা এ কালেও বিপস্নবের প্রতীক। লাতিন আমেরিকাতে শুধু নয়, সারা পৃথিবীতে। প্রজন্মের পর প্রজন্ম তারুণ্য ধারণ করছে তাঁকে। লালনের বিস্তৃতি চে'র মতো বিশ্বময় নয়। তবে চে'র ছাপচিত্র বুকে নিয়ে যারা চারপাশ বদলে দেয়ার স্বপ্ন দেখে তারাই এগিয়ে নেয় লালনকে। ছেঁউড়িয়ার আখড়ার সুর বাজে শহুরে তরুণের গলায়। সে সুরে বহুজাতিক কোম্পানি মাতাল হয়নি এখনও। চে'র প্রতিকৃতি নিয়ে যেমন হয়েছে। হয়ত তাই লালন ছড়িয়ে পড়েনি বিশ্বময়। আর চে'র ধারালো . . .
গাদ্দাফি নিহত
লিবিয়ার নেতা কর্নেল মুয়াম্মার আল গাদ্দাফি নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার তাঁর জন্মশহর সিরতে লিবিয়ার বিদ্রোহী বাহিনীর (এনটিসি) সঙ্গে লড়াইয়ে তিনি নিহত হন। আহত অবস্থায় তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। গ্রেফতারের কিছুক্ষণ পর এনটিসি যোদ্ধাদের হেফাজতে থাকা অবস্থায় তাঁর মৃতু্য হয়। গাদ্দাফির মৃত্যুর মধ্য দিয়ে লিবিয়ায় তাঁর ৪২ বছরের ঘটনাবহুল একনায়কতন্ত্রের অবসান ঘটল। বিদ্রোহী বাহিনীর সঙ্গে লড়াইয়ে গাদ্দাফির ছেলে মুতাসসিমও নিহত হয়েছেন এবং আরেক ছেলে সাইফ আল ইসলামকে আহত অবস্থায় গ্রেফতার করা হয়েছে। গত ২৩ আগস্ট লিবিয়ার রাজধানী . . .
স্পীকারের আহ্বান
বিরোধী দলকে সংসদের অধিবেশনে যোগদানের জন্য আবারও আহ্বান জানিয়েছেন স্পীকার এ্যাডভোকেট আবদুল হামিদ। তিনি বলেছেন, সংসদে আসুন, সরকারের ভুল-ত্রুটি ধরিয়ে দিয়ে গঠনমূলক সমালোচনা করুন। বৃহস্পতিবার নবম জাতীয় সংসদের একদাশ অধিবেশনের উদ্বোধনী ভাষণে স্পীকার এই আহ্বান জানান। তিনি আরও বলেছেন, গণতন্ত্রের পূর্ণ বিকাশের স্বার্থে বিরোধী দলের সংসদে আসা উচিত। স্পীকারের কথাগুলো খুবই তাৎপর্যপূর্ণ । সংসদ কার্যকর করতে সরকারী দলের মতই সমান ভূমিকা রয়েছে বিরোধী দলের। কিন্তু সেটা হচ্ছে না। সংসদ অধিবেশনে বিরোধী দল যাচ্ছে না। . . .